রাহুল গান্ধী।
ভারতের কংগ্রেস দলীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী। ফাইল ফটো

আপনি বড়লোক ও চোরদের চৌকিদার, ‘মোদীকে -রাহুল

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সাধারণ মানুষদের নয় বরং অনিল আম্বানি-নীরব মোদীর মতো মতো ধনী, দুর্নীতিবাজ, ও চোরদের চৌকিদার। এমন মন্তব্য করেছেন ভারতের কংগ্রেস দলীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী। পশ্চিমবঙ্গের মালদহে লোকসভা নির্বাচন সামনে রেখে আয়োজিত জনসভায় এই কথা বলেন তিনি। উল্লেখ্য লোকসভা নির্বাচনে জিততে চৌকিদার ক্যাম্পেইন শুরু করেছেন বিজেপি।

রাহুল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সারা দিন মিথ্যা কথা বলেন। প্রথমে বললেন আমি চৌকিদার, প্রধানমন্ত্রী নই। এখন বলছেন দেশের সবাই চৌকিদার। মোদীজি, সবার বাড়িতে চৌকিদার থাকে না। আপনি অনীল আম্বানি, মেহুল চোকসি আর নীরব মোদীর মতো বড়লোক ও চোরদের চৌকিদার। দেশ ভক্তির কথা বলেন আর ভারতের ৩০ হাজার কোটি টাকা অনীল আম্বানিদের টাকা পাইয়ে দেন।’

রাহুল সমালোচনা করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও। বলেন, ‘মমতাজি বাংলায় কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেননি। কৃষকদের জন্য কিছু করেননি। একজন ব্যক্তির জন্য সরকার পরিচালিত হয়। আর অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী আচমকা একদিন রাতে ভাবলেন তাঁর ৫০০ এবং হাজার টাকার নোট পছন্দ নয়। তাই বাতিল করে দিলেন। একবার আমাদের সরকার আসুক দেখুন কী হয়! সরকারি হাসপাতাল থেকে শুরু করে সরকারি স্কুল হবে।’

দীর্ঘদিন ধরে লোকসভার মালদহের আসনে জিতে আসছেন কংগ্রেস প্রার্থীরা। তবে এবার একজন দল ছেড়েছেন মৌসুম বেনজির দূর। গনি খান চৌধুরির পরিবারের এই সদস্য পদত্যাগ করায় ধাক্কা খেয়েছে কংগ্রেস। এমতাবস্থায় ওই পরিবারের সদস্য ইশা খান চৌধুরীকে প্রার্থী করেছে কংগ্রেস।

মালদহে এবার চতুর্মুখী লড়াই হচ্ছে। উত্তরে তৃণমূলের মৌসুমের সঙ্গে লড়াই হচ্ছে বিজেপির খগেন মুর্মু, কংগ্রেসের ইশা খান চৌধুরি এবং বাম প্রার্থীর। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বিশ্বনাথ চক্রবর্তী মনে করেন চতুর্মুখী লড়াই হলে ভোট যেভাবে ভাগ হবে তাতে মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষের প্রভাব বেশি এমন কেন্দ্রে সুবিধা পাবে তৃণমূল।