ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:০৩ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আপনি দেশনেত্রী নন, আপনি সন্ত্রাস ও ভীতির নেত্রী

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন। আপনাদের সহযোগিতা আমাদেরকে অনুপ্রানিত করবে।

 

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড.হাছান মাহমুদ এমপি পুত্র হারানোর বেদনা অনুধাবন করে সহিংস রাজনীতি পরিহার করার জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
তিনি আজ দুপুরে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়ার দশম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহবান জানান।
বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ড. ইনামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন খাদ্যমন্ত্রী এবং ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কামরুল ইসলাম।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সদস্য হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, কৃষকলীগ নেতা এম এ করিম ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।
বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশে ড. হাছান মাহমুদ বলেন,‘ আপনি দেশনেত্রী নন, আপনি সন্ত্রাস ও ভীতির নেত্রী। তবে, আপনার সন্তান হারানোয় আমরা শোকাহত।’
তিনি বলেন, ‘আপনি সন্তান হারানোর ব্যথা ও কষ্ট অনুধাবন করে পেট্রোলবোমার সহিংস রাজনীতি পরিহার করুন।’
তিনি বলেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আরাফাত রহমান কোকোর নামাজে জানাজা ও দাফনের বিষয়ে সকল সহযোগিতা করেছে।
তিনি বলেন, কোকোর জানাজার নামে বিএনপি-জামায়াত দেশে কোন ধরনের নাশকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করলে তাদের রাজনীতির কবর রচিত হবে।
সংলাপ ও জাতীয় নির্বাচন সম্পর্কে হাছান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মায়ের স্নেহ নিয়ে খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু খালেদা জিয়া দরজা খুললেন না।
তিনি বলেন, যে দলের অফিসের সামনে যাওয়ার পরও দরজা খোলা হয় না- তাদের সাথে কোন সংলাপ হতে পারে না। সংবিধান অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
এডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, দেশের যেখানে অরাজকতা হবে, সেখানেই বেগম খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামী করা উচিত।
তিনি বলেন, বর্তমানে সারা দেশে যে ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে তার অর্থের যোগান দিচ্ছে বিএনপির বিত্তশালী নেতারা। তাদের বিরুদ্ধেও অর্থের যোগানদাতা হিসেবে মামলা হওয়া দরকার।
কামরুল বলেন, সন্ত্রাসীদের সাথে আওয়ামী লীগের কোন সংলাপ হতে পারে না। নির্বাচন যথা সময়েই হবে।
বিএনপিতে ভাঙ্গনের সুর বেজে উঠেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দলটির ভেতরে যেসব শুভবুদ্ধি সম্পন্ন নেতা রয়েছেন তারা শিগগিরই খালেদা জিয়ার নেতৃত্ব থেকে বেরিয়ে আসবেন। সেদিন খুব বেশী দূরে নয়।