Press "Enter" to skip to content

“আন্দোলনের কথা বলছেন সেটা আর হবে না”

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপিকে হুমকি-ধামকি বাদ দিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার আহবান জানিয়েছেন।

বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা হুমকি-ধামকি বাদ দিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। আপনারা যে আন্দোলনের কথা বলছেন সেটা আর হবে না। আন্দোলনের হুমকি বাদ দিয়ে নির্বাচনে আসুন, নির্বাচন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করুন।’

নাসিম আজ দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয় সংলগ্ন প্রিয়াংকা কমিউনিটি সেন্টারে ১৪ দলের সভা শেষে এ আহবান জানান।

কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন,নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি-জামায়াত নানা রকম ষড়যন্ত্র করছে, হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। তারা আবার দেশে হাওয়া ভবন তৈরি করতে চায়, সন্ত্রাসী-বোমাবাজী ও জঙ্গীবাদের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। দেশকে তারা বার বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ান করেছিল, সেটা আবার করতে চায়।

এর আগে সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়ার সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা পরিচালনা করেন মোহাম্মদ নাসিম।

সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী , জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ (একাংশ)’র সভাপতি শরিফ নুরুল আম্বিয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টিও পলিটব্যুরোর সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক ,বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন ও ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন।

সভায় ১৪ দলের নেতারা বিএনপি এবং সাম্প্রদায়িক শক্তির ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় ১৪ দলের কার্যক্রম তৃলমূল পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার উপর জোর দেন।

নির্বাচন নিয়ে বিএনপির জোট যে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে তা মোকাবেলা করতে হলে তৃণমূল পর্যায়ের জনগণকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন নেতৃবৃন্দ। এর জন্য আগামী নির্বাচন পর্যন্ত তৃণমূল পর্যায়ে ১৪ দলের কার্যক্রম বৃদ্ধি করে জনগণকে সম্পৃক্ত করার কথা বলেন। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ১৪ দলের নেতারা জেলা, উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে কর্মসূচি নেওয়ার পরামর্শও দেন।

সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, বিএনপির নেতারা যা বলেন, তা তাদের হতাশা থেকে বলেন। হতাশা থেকেই তারা এ ধরনের হুমকি-ধামকি দেন। তাদের বলবো হতাশ না হয়ে নির্বাচনে আসেন।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচন নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের অশুভ তৎপরতার বিরুদ্ধে এবং সরকারের উন্নয়ন ও অর্জন জনগণের সামনে তুলে ধরতে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের উদ্যোগে রাজশাহী, নাটোর ও খুলনায় জনসভা করবে। এরপর নতুন কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

Mission News Theme by Compete Themes.