ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:৫০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)

আন্দোলনকারীদের চোখ বেঁধে তুলে নেয়া হয়নি : ডিএমপি

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের চোখ বেঁধে ডিবিতে আনার অভিযোগটি সত্য নয় বলে দাবি জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন।

তিনি বলেন, তিন ছাত্র নেতাকে চোখ বেঁধে তুলে নেয়ার বিষয়টি সঠিক নয়। এটা এক ধরনের ভুল বোঝাবুঝি। আন্দোলনকারী তিন নেতার চোখ বাঁধার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

আজ মঙ্গলবার ডিএমপি’র মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

যুগ্ম কমিশনার বলেন, ‘এটা দু-পক্ষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। কোটা সংস্কারের আন্দোলন নিয়ে আমাদের কোন অবস্থান নেই। আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্যের বাসায় হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলা তদন্ত করছি।’

তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসায় হামলার ঘটনায় একাধিক শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন সময়ে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে। যেহেতু হামলাকারীদের আমরা সরাসরি চিনি না। হামলাকারীদের চিহ্নিত করতে প্রয়োজনে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা নিতে ছাত্রদেরকে এখানে ডেকে আনা হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আব্দুল বাতেন বলেন, এই তিন ছাত্রনেতার বিরুদ্ধে সরাসরি কোনো অভিযোগ নেই। তারা যে দাবি করেছে, তাদের চোখ বেঁধে তুলে নেওয়া হয়েছে, সেটি একেবারে ভিত্তিহীন। এটা নিছক ভুল বোঝাবুঝি।

মামলা প্রত্যাহারের দাবির প্রেক্ষাপটে তাদেরকে আটক করা হয়েছিল কিনা ? এমন প্রশ্নের জবাবে আব্দুল বাতেন বলেন, মামলা প্রত্যাহার চাওয়ার সঙ্গে তাদেরকে ডিবিতে নিয়ে আসার সঙ্গে কোন সম্পর্ক নেই।

মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য জানান, শুধু মাত্র জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এই তিনজনকে ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়েছিল। পরে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

গত সোমবার কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির তিন যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান, নুরুল হক ও ফারুক হাসানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে থেকে তুলে নেয় গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। -বাসস