ব্রেকিং নিউজ

রাত ১২:০১ ঢাকা, শুক্রবার  ২২শে জুন ২০১৮ ইং

আসাদুজ্জামান খান কামাল
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ফাইল ফটো

‘আত্মসমর্পণকারী দস্যুদের পুনর্বাসন’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, জলদস্যুরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চাইলে তাদের আইনী সহায়তা দেয়া হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আত্মসমর্পণকারী দস্যুদের পুনর্বাসনের উদ্যোগ নিয়েছেন। তাদের প্রশিক্ষন দেয়ার পরিকল্পনাও চলছে।

সোমবার বেলা সোয়া ১১ টায় বরিশাল নগরীর রুপাতলীতে র‌্যাব-৮’র কার্যালয়ে সুন্দরবনের জলদস্যু খোকাবাবু বাহিনীর আত্মসমার্পন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি, তালুকদার মো. ইউনুচ এমপি ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বরিশাল র‌্যাব-৮’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. ইফতেখারুল মাবুদ।

অনুষ্ঠানে বাহিনীর প্রধান খোকাবাবুসহ ১২ ডাকাত ২২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও এক হাজার তিন রাউন্ড গোলাবারুদ নিয়ে আত্মসমর্পণ করে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শিগগিরই আত্মসমর্পণ করুন, কেননা অচিরেই আমরা সুন্দরবনে বনদস্যু ও জলদস্যুদের নির্মূলে অভিযান পরিচালনা করবো। আর অপার সম্ভাবনার এই বনাঞ্চল রক্ষায় আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। কেবল দস্যুরাই নয়, এদের মদদ ও অর্থদাতাদের তালিকা তৈরী করা হচ্ছে। তাদের পরিণতি হবে ভয়াবহ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের অধীনে দেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে চলেছে। এই ধারা অব্যাহত রাখতে জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাসবাদের ন্যায় দস্যুদেরও রেহাই দেয়া হবেনা। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা ব্লু ইকনোমির দিকে যাচ্ছি। সে ক্ষেত্রে অপার সম্ভাবনার সুন্দরবনকে দস্যুদের হাত থেকে মুক্ত করতে পুলিশ, কোস্টগাড ও র‌্যাবকে আরো শক্তিশালী করা হচ্ছে। তাই যারা এখনো দস্যুতা করে চলেছেন তারা আত্মসমর্পণ করুন। নতুবা আমাদের বাহিনী অচিরেই অপারেশন পরিচালনা করলে ভয়ানক পরিস্থিতি হবে।

এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আশ্বস্ত করে বলেন, যারা আত্মসমর্পণ করেছেন তাদের বিরুদ্ধে হত্যা বা সুর্নিদিষ্ট অভিযোগ না থাকলে তাদের আইনী সহায়তা দিয়ে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে। কেবল তাই নয়, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী তাদের জন্য কর্মক্ষেত্র বা বিদেশে পাঠানো যায় কিনা সে ব্যবস্থা নিতে র‌্যাবের মহাপরিচালকে নির্দেশ দিয়েছি।

আত্মসমর্পণকারী জলদস্যুরা হচ্ছে- জলদস্যু বাহিনী প্রধান মো. কবিরুল ইসলাম খোকাবাবু (৩৩), মো. আমিনুর ইসলাম (৩২), মো. শাহজাহান গাজী (৩০), মো. আজিজ (৪৪), মো. মিজানুর রহমান (৩৬), মো. রবিউল ইসলাম (২৫), মো. ওসমান গনি (৩৩), মো. রফিকুল গাজী (৩৩), মো. ইয়াছিন আলী গাজী (২৫), মো. মহিদুল ইসলাম (৩৩), মো. মজিবর রহমান (৩৮) ও মো. কালাম (৩৫)।