ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:০৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আত্মরক্ষার্থেই ভারতীয় সীমান্তরক্ষীরা গুলি চালায়!! - বিজিবি'র ডিজি
বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন এনডিসি-পিএসসি, ফাইল ফোটো

আত্মরক্ষার্থেই ভারতীয় সীমান্তরক্ষীরা গুলি চালায়!! – বিজিবি’র ডিজি

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ নিজেদের আত্মরক্ষার্থেই সীমান্তে গুলি চালায় বলে মন্তব্য করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন এনডিসি-পিএসসি।

বুধবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা সীমান্ত পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন দুপুর ৩টায় চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌঁছান। এরপর দর্শনা কোম্পানি ক্যাম্পের নতুন ভবন উদ্বোধন করেন। পরে দর্শনা সীমান্ত পরিদর্শনে যান মহাপরিচালক। এ সময় তিনি সীমান্তে দায়িত্ব পালনরত বিজিবি-বিএসএফ সদস্যদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

সীমান্ত পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে অনেকটা খোলামেলা কথা বলেন মেজর জেনারেল আবুল হোসেন।

তিনি বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর সীমান্ত পরিদর্শনের অংশ হিসেবেই চুয়াডাঙ্গায় আগমন। এ সময় সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, বিভিন্ন সময়ে বিজিবি-বিএসএফ উচ্চ পর্যায়ের পতাকা বৈঠকের পরও কেন সীমান্তে বাংলাদেশী হত্যা বন্ধ হচ্ছে না।

উত্তরে মহাপরিচালক বলেন, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ নিজেদের আত্মরক্ষার্থেই সীমান্তে গুলি চালায়। কারণ আত্মরক্ষার অধিকার সবার আছে।

সীমান্তে দু’দেশের চোরাচালানকারীরা খুব দুর্ধর্ষ এমন মন্তব্য করে তিনি জানান, অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে সীমান্তহত্যা এখন অনেক কম। সীমান্তহত্যা শূন্যের কোঠায় আনতে বিজিবি-বিএসএফ যৌথভাবে কাজ করছে।

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও কথা বলেন বিজিবির মহাপরিচালক। তিনি জানান, ৬৫ হাজার রোহিঙ্গা দেশে ঢুকেছে এমন পরিসংখ্যান সঠিক নয়। বিজিবির পক্ষে তো সারারাত হাতে হাত দিয়ে সীমান্ত পাহারা দেয়া সম্ভব হয় না। বিজিবির চোখ এড়িয়ে কিছু রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে বলে তিনি স্বীকার করেন। যথাসময়ে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে তাদেরকে পুশব্যাক করে মিয়ানমারে পাঠানো হবে বলেও জানান মেজর জেনারেল আবুল হোসেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আঞ্চলিক রিজিয়ন কমান্ডার (ভারপ্রাপ্ত) কর্ণেল ওহেদুজ্জামান, অপারেশন কমান্ডার লেঃ কর্নেল মাকসুদ, খুলনা সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল ইকবাল, কুষ্টিয়া সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মাহবুবুর রহমান, সেক্টর জি-২ মেজর তারেক মাহমুদ, ৪৭ বিজিবির পরিচালক লেঃ কর্ণেল শহীদ, ৫৮ বিজিবির পরিচালক লেঃ কর্ণেল জিল্লুর রহমান ও চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক লেঃ কর্ণেল আমির মজিদ। – খবর যুগান্তরের।