ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:২৫ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আজ ২০ দলীয় জোটের সমাবেশে খালেদা জিয়া ভাষণ দেবেন

আজ শনিবার কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ২০ দলীয় জোট আয়োজিত জনসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দেবেন। এ উপলক্ষে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, কুমিল্লা মহানগরী ও আশপাশ এলাকা সেজেছে নতুন সাজে। এ দিকে নিরাপত্তার স্বার্থে কুমিল্লা জেলা পুলিশ চারটি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায় সার্বণিক মনিটরিং করবে। জেলা বিএনপি ও জামায়াতের নেতারা আশা করছেন সমাবেশস্থল ও তার আশপাশ এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যাবে। পুরো কুমিল্লা জনসমাগমের কারণে কার্যত অচল হয়ে পড়বে। এ সমাবেশ হবে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় সমাবেশ।

এ দিকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে আগে থেকেই কোজ সার্কিট ক্যামেরা লাগানো আছে, যা সরাসরি কুমিল্লার পুলিশ সুপার পর্যবেণ করেন। এ ছাড়া আরো চারটি কোজ সার্কিট ক্যামেরা দিয়ে সমাবেশস্থল পর্যবেণ করা হবে। মাঠে থাকবে গোয়েন্দা পুলিশের সার্বণিক নজরদারি। জনসভার প্রস্তুতি প্রায় শেষ। জেলা বিএনপি-জামায়াত ও অন্যান্য দলের শীর্ষ নেতারা টাউন হল মাঠের বিভিন্ন অংশ ঘুরে সমাবেশের প্রস্তুতি সম্পর্কে খোঁজখবর নিচ্ছেন।

‘শুভেচ্ছা স্বাগতম-দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আগমন’, ‘বেগম জিয়া আসছে, কুমিল্লা আনন্দ জোয়ারে ভাসছে’ ইত্যাদি স্লোগানসংবলিত ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে কুমিল্লা। বিএনপি চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটনেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কুমিল্লা সফর উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে কুমিল্লা মহানগরীসহ ১৬ উপজেলা বিএনপি। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে কুমিল্লা টাউন হলের জনসভাস্থলে মঞ্চ নির্মাণ, মাইক স্থাপনসহ নানা কাজে ব্যস্ত সময় কাটান দলের নেতাকর্মীরা। ঢাকা থেকে সড়কপথে কুমিল্লায় আসবেন বেগম খালেদা জিয়া। তাই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের দাউদকান্দি টোল প্লাজা থেকে শুরু করে কুমিল্লা মহানগরীর জনসভাস্থল পর্যন্ত ৫০ কিলোমিটার এলাকায় সহস্রাধিক তোরণ নির্মাণ করছেন বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠন এবং জামায়াতসহ ২০ দলীয় জোটের অন্যান্য শরিক দলের নেতাকর্মীরা।
এ দিকে খালাদা জিয়ার আগমনে কুমিল্লার নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত হয়ে উঠেছেন। আবার অনেকে নেত্রীসহ দলের নীতিনির্ধারকদের দৃষ্টি কাড়তে জোটনেত্রী ও ঊর্ধ্বতন নেতাদের বড় বড় ছবি ও নিজের ছবি সংবলিত তোরণ, ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার সাঁটিয়েছেন। মহানগরীসহ প্রতিটি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রচারণায় মাইকিং, লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছেন দলের নেতাকর্মীরা। শুধু ইলিয়টগঞ্জ বাজার থেকে তীরচর পর্যন্ত এক কিলোমিটার এলাকায় ২৪টি তোরণ নির্মাণ করেছেন বিএনপি, জামায়াত, এলডিপিসহ জোটের নেতাকর্মীরা।  তার আগমনকে স্বাগত জানিয়ে বিএনপি-জামায়াত মহাসড়কে অর্ধশতাধিক তোরণ নির্মাণ করেছে।

২২৬টি মাইক ও ১২টি প্রজেক্টর স্থাপন করেছে, বিএনপি চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কুমিল্লায় জনসভা উপলক্ষে কুমিল্লা জেলাজুড়ে বিএনপি ও জামায়াতের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, সমর্থকসহ ২০ দলীয় জোটের অন্য শরিকদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে , এ আগমন উপলক্ষে কুমিল্লা জেলা ও উপজেলা, ইউনিয়নে, ওয়ার্ড ও পাড়া-মহল্লায় সারা দিন চলছে প্রস্তুতিসভা। জনসভা সফল করার জন্য প্রতিদিনই পাড়া-মহল্লায় বৈঠক করছেন ২০ দলীয় নেতৃবৃন্দ। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া কুমিল্লার জনসভায় কী বলবেন তা শোনার জন্য অধীর আগ্রহ বিরাজ করছে সাধারণ মানুষের মাঝে।

Like & share করে অন্যকে দেখার সুযোগ দিন