Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৩৬ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

আজ ‘গণতন্ত্র হত্যা’-‘গণতন্ত্রের বিজয়’ দিবস পালন করবে প্রধান দুটি দল

৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনের দ্বিতীয় বর্ষপূতির দিন ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আজ সমাবেশ করবে বিএনপি। অপরদিকে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ও ধানমন্ডি রাসেল স্কয়ারে দুটি সমাবেশ করবে আওয়ামী লীগ।

এদিকে জাতীয় পার্টি বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর দোলাইরপাড়ে ‘গণতন্ত্রের জন্য শান্তির মিছিল’ কর্মসুচি পালন করবে। আর বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী মিছিল, সমাবেশ ও আলোচনা সভার কর্মসূচি ঘোষণা করে সব শাখাকে নির্দেশ দিয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কিছু শর্ত সাপেক্ষে বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়। এর মধ্যে অন্যতম শর্ত হচ্ছে কার্যালয়ের সম্মুখে জনসভার কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখতে হবে, রাস্তা ব্যবহার না করে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সম্মুখে স্বল্প পরিসরে মঞ্চ নির্মাণ করা যাবে। স্বল্পসংখ্যক মাইক ব্যবহার করা যাবে। কোনো অবস্থাতেই রাস্তায় যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করা যাবে না, মিছিল করে সমাবেশে আসা যাবে না, নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় জনসভাস্থলের ভেতরে ও বাইরে উন্নত রেজল্যুশনের সিসি ক্যামেরা স্থাপন এবং বিকাল পাঁচটার মধ্যে সমাবেশ শেষ করতে হবে।

আলোচিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির দিন প্রথমে বিএনপি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৫ জানুয়ারি সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়ে ডিএমপির কাছে সমাবেশের অনুমতি চায়। এরপর একইদিন একই স্থানে সমাবেশ করার ঘোষণা দেয় আওয়ামী লীগও। এ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গণে ফের উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার বেলা ১২টার দিকে বিএনপির পক্ষ থেকে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তাদের সমাবেশ করতে দেয়া না হলেও বিএনপি কোন সাংঘর্ষিক কর্মসূচি দেবে না। সরকারের প্রতি তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে সহযোগিতার মাধ্যমে গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা অক্ষুন্ন রাখার আহ্বানও জানানো হয়।

এরপর বিকালে প্রথমে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও পরে ডিএমপি দুটি দলকেই সমাবেশের অনুমতি দেয়।

এদিকে আজ দুটি দলের সমাবেশ ও অন্যান্য দলের মিছিলসহ অন্যান্য কর্মসূচির কারণে নগরবাসী চরম যানজটের আশংকা করছেন।