ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৫৭ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

‘আগামীতেও আ.লীগকে ক্ষমতায় আনতে কাজ করবে নতুন নেতৃত্ব’

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনার জন্য যেভাবে কাজ করা দরকার সেভাবেই নতুন নেতৃত্ব কাজ করবে।

তিনি বলেন, ‘আগামী জাতীয় নির্বাচন ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হবে। আর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মাধ্যমে যারা নেতৃত্বে আসবেন তারা আওয়ামী লীগকে যেভাবে ক্ষমতায় আনা যায় সেভাবেই কাজ করবেন।’

ড. হাছান মাহমুদ আজ দুপুরে নগরীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির এক বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

আগামী ২২-২৩ অক্টোবর আওয়ামী লীগের ২০ তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠানের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, এডভোকেট সানজিদা খাতুন এমপি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আকতার হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা উপ-পরিষদের সদস্য মারুফা আক্তার পপি, শাহ মোস্তফা আলমগীর ও আশরাফ সিদ্দিকী বিটুসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে ডিজিটাল ও প্রিন্ট প্রকাশনায় দেশের জঙ্গী তৎপরতায় বিএনপি-জামায়াত যে জড়িত রয়েছে তা তুলে ধরা হবে।

তিনি বলেন, ‘ বিএনপি-জামায়াত যে শুধু সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের সাথে জড়িত তাই নয়, তারা যে জঙ্গী তৎপরতা ও জঙ্গীদের মদদদাতা ও পৃষ্ঠপোষক তা তুলে ধরা হবে।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, যুক্তরাষ্টসহ বিভিন্ন দেশ সরকারের জঙ্গীবাদ মোকাবেলার প্রশংসা করছে। আর বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও তার দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গ্রেফতারকৃত ও নিহতরা জঙ্গী কিনা সে বিষয়ে প্রশ্ন তুলছেন।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, বিএনপির শীর্ষ নেতাদের বক্তব্যেও মাধ্যমে প্রমাণ হয় জঙ্গীদের সাথে তাদের সম্পর্ক রয়েছে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আগামী ১ অক্টোবর নগরীর রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে আওয়ামী লীগের পঞ্চম সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সামাজিক ও স্বাস্থ্য খাত এবং খাদ্য নিরাপত্তায় বর্তমান সরকারের সফলতা নিয়ে এ সেমিনারে আলোচনা করা হবে।

রামপাল কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে ইউনেস্কোর প্রতিবেদন সম্পর্কে জানতে চাইলে সাবেক পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান বলেন, এ প্রতিবেদন যারা আন্দোলন করছে তাদের দ্বারা প্রভাবিত।

এর আগে আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য এবং জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির আহবায়ক এইচ টি ইমামের সভাপতিত্বে এক সভা অনুষ্টিত হয়। সভায় উপ-কমিটির কাযক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। উপ-কমিটির অণু কমিটিসমূহকে আগামী ১ অক্টোবরের মধ্যে সমস্ত কাজ শেষ করে উপ-কমিটির কাছে জমা দেওয়ার অনরোধ করা হয়।