Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:১৬ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

আখেরি মোনাজাতে বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি

মুসলিম উম্মাহ, বিশ্ববাসী ও দেশের শান্তি এবং কল্যাণ কামনায় শেষ হলো ৫০তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। রোববার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। শেষ হয় ১১টা ৫০ মিনিটে।
তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি দিল্লির মাওলানা মুহাম্মদ সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন।
৩০ মিনিটের মোনাজাতে লাখ লাখ মুসল্লি মহান আল্লার কৃপা ও নৈকট্য কামানায় আমিন আমিন ধ্বনি আর দুই চোখের নিগড়ানো পানি ঝরায়। আল্লাহর সান্নিধ্য, সন্তুষ্টি লাভ আর নিজের চাওয়া পাওয়াকে আল্লাহর কাছে তুলে ধরে কায়মনে প্রার্থনারত মুসল্লিদের এসময়ে অঝরে কাদতে দেখা যায়।
মোনাজাতে বিশ্ববাসীর জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনাসহ দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা, সমৃদ্ধির জন্য আল্লাহর বিশেষ সাহায্য কামনা করা হয়। এছাড়া মুসলিম উম্মাহর নিরাপত্তা, দুনিয়া ও আখেরাতের জন্য শান্তি, কল্যাণ ও নাজাত কামনা করা হয়।
এর আগে ২০ দলীয় জোটের অবরোধ-হরতাল আর প্রচন্ড শীতকে উপেক্ষা করে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল নেমেছে টঙ্গীর তুরাগ তীর ইজতেমা ময়দানে। আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে তাই ভোর রাত থেকে টঙ্গীর পাড়ে মুসল্লিদের ঢল দেখা যায়। বিভিন্ন বাহনে পায়ে হেটে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এবং ঢাকা ও এর আশে পাশের জেলা গুলো থেকে মুসল্লিরা টঙ্গীর তুরাগ তীরে আসতে থাকে।
এদিকে মোনাজাতে অংশ নিতে সকাল পৌনে ৮টায় ইজতেমাগামী দুই মুসল্লি রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকায় ট্রেনের ছাদ থেকে পড়ে এবং টঙ্গী এলাকায় এক মুসল্লি ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়েছেন।
গতকালের বৃষ্টিতে ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশের রাস্তাঘাট পানি জমে কাদা হয়ে গেছে। খোলা আকাশের নিচে রান্নাবান্নার জন্য তৈরি মাটির অস্থায়ী চুলা বৃষ্টির পানিতে গলে গলে পড়ে। কাদা মাটিতে চলাফেরাসহ ওজু এবং গোসলে নানা দুর্ভোগে পড়ে মুসল্লিরা। তারপরও মুসল্লিদের তেমন আক্ষেপ নেই। তারা বলছেন, দীনের পথে মেহনত করতে এসে প্রাকৃতিক দুর্যোগ থাকতেই পারে।
ইজতেমা আয়োজক কমিটির নেতারা বলেছেন, স্থান সংকুলানসহ বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ২০১১ সাল থেকে দুই দফায় বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করা হচ্ছে।