Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৫০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

আখেরি মোনাজাতে ইজতেমার শেষ পর্ব রবিবার

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিন আজ।  গোটা ইজতেমাস্থল টঙ্গীতে দেশ-বিদেশের মুসল্লিদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে। আল্লাহ প্রদত্ত বিধি-বিধান ও রাসুল (স.) প্রদর্শিত তরিকা অনুযায়ী জীবন গড়ার আহ্বান জানিয়ে দেশ-বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির জিকির আসকার, ইবাদত বন্দেগী আর পবিত্র কোরআনের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ বয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত হচ্ছে।
রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে তাবলিগ জামাত আয়োজিত ৫১তম বিশ্ব ইজতেমার শেষ পর্ব।  ইজতেমা ময়দানের বিদেশি নিবাসের পূর্ব পাশে বিশেষভাবে স্থাপিত মোনাজাত মঞ্চ থেকে এ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।  এতে প্রায় ৩০ লাখ মুসল্লি অংশ নেবেন বলে ইজতেমার আয়োজকরা ধারণা করছে।
শুক্রবার ভোর থেকে এশা পর্যন্ত ইজতেমায় আগত মুসল্লিরা উপ মহাদেশের বিশিষ্ট আলেমদের গুরুত্বপূর্ণ বয়ান শুনেছে।  আজ বাদ ফজর থেকে দ্বিতীয় দিনের মতো বয়ান শুরু হয়েছে।  বাদ ফজর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মুহাম্মদ খোরশেদ।  বাদ জোহর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা মুহাম্মদ ফারুক, বাদ আছর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা মুহাম্মদ ইউসুফ ও বাদ মাগরিব বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা মুহাম্মদ শওকত আলী।
ইজতেমা ইতিহাস
ইজতেমার মুরুব্বীদের দেয়া তথ্য মতে, ১৯৪৬ সালে প্রথম কাকরাইল মসজিদে ইজতেমার আয়োজন শুরু করা হয়।  তারপর ১৯৪৮সালে চট্টগ্রামের হাজী ক্যাম্পে ও ১৯৫৮সালে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়।  এরপর লোকসংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় ১৯৬৬ সালে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বর্তমানস্থলে স্থানান্তর করা হয়েছে।  পরে সরকারি ভাবে তুরাগ তীরের ১৬০একর জমি স্থায়ীভাবে ইজতেমার জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়।