ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৩৫ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সেলিনা হায়াৎ আইভী
সেলিনা হায়াৎ আইভী

আইভীর আয়ের উৎস ‘সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’ : সুজন সমন্বয়ক

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী হলফনামায় ‘অসামঞ্জস্য’ তথ্য দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দীলিপ কুমার সরকার।

রোববার সুজন আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সুজনের লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, “মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী তার হলফনামায় পেশার ঘরে ‘চিকিৎসক’ উল্লেখ করলেও তার আয়ের উৎস হচ্ছে জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রাপ্ত বেতন ভাতা।”

বিষয়টি তথ্য গোপন বা অসত্য তথ্য প্রদানের মধ্যে পড়ে কি না গণমাধ্যমকর্মীদের এমন প্রশ্নের জবাবে সুজনের পক্ষ থেকে সরাসরি কোনো উত্তর না দিলেও বিষয়টি ‘সামঞ্জস্যপূর্ণ’ নয় বা ‘অসামঞ্জস্য’ বলে উল্লেখ করা হয়।

তবে বিষয়টি দেখার দায়িত্ব সুজনের নয় নির্বাচন কমিশনের এমন মন্তব্য করেন নেতৃবৃন্দ।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনের প্রতিপ্রাদ্য বিষয় ছিল- নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে সৎ, যোগ্য ও জনকল্যাণে নিবেদিত ব্যক্তিকে নির্বাচিত করতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানানো।

এছাড়াও অর্থ প্ররোচনা ও আবেগের বশবর্তী হয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ না করা সহ সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসা ও দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের ভোট না দেয়ারও আহ্বান জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সুজনের জেলা সভাপতি আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দীলিপ সরকার।

এতে অভিযোগ করে বলা হয়, নির্বাচনে প্রতীক নিয়ে আসায় নাসিক নির্বাচন স্থানীয় গুরুত্ব হারিয়েছে। সুজন চায়- ভোটাররা প্রার্থীদের আমলনামা দেখে ভোট প্রদান করুক। নির্বাচনে রাজনীতিকরণ করায় এখন ভোটাররা মার্কা নিয়ে কথা বলছে। যেখানে স্থানীয় উন্নয়ন নিয়ে কথা বলার কথা ছিল।

লিখিত বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র, সংরক্ষিত নারী ও সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীদের হলফনামা অনুযায়ী তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, আয়ের উৎস, ঋণ খেলাপি ও মামলায় জড়িত প্রার্থীদের বিস্তারিত চিত্র তুলে ধরা হয়।

আগামী ১৭ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিশিষ্ট নাগরিকদের উপস্থিতিতে মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে জনগণের মুখোমুখি অনুষ্ঠান করবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানায় সুজন। এতে সাধারণ নাগরিকরা মেয়র প্রার্থীদের প্রশ্ন করতে পারবেন।

সুজনের দেয়া তথ্যে দেখা যায়, বাৎসরিক আয়ের ঘরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বার্ষিক আয় ১১ লাখ ৩৪ হাজার টাকা আর  বিএনপির প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খাঁন ৮ লাখ ৬৯ হাজার ১০০ টাকা উল্লেখ করেছেন।

কর প্রদান সংক্রান্ত তথ্যে দেখা যাচ্ছে- আইভী বেশী টাকা আয় করেও ২৩ হাজার ৪০০ টাকা কর প্রদান করছেন। সাখাওয়াত হোসেন আইভী থেকে কম আয় করেও ২৮ হাজার ৩৬০ টাকা প্রদান করছেন।

এ বিষয়ে সাংবাদিকরা দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সুজন সমন্বয়ক দিলীপ কুমার সরকার বলেন, এখানে প্রার্থী আইভীর রেয়াত নেয়ার (মওকুফ) মতো কোনো বিষয় থাকতে পারে।  হলফনামায় যা পেয়েছি তা উল্লেখ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুজনের কেন্দ্রীয় সহযোগী সমন্বয়ক সানজিদা হক, জেলা সভাপতি আবদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল, সহ-সাধারণ সম্পাদক এসএমএইচ টিটু, আঞ্চলিক সমন্বয়ক মশিকুল ইসলাম শিমুল।

এর আগে একই আহ্বান ও বিভিন্ন দাবীতে সুজন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে।