Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৩:০৭ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আইএসের ৮০ যোদ্ধা নিহত
ফাইল ফটো

আইএসের ‘গণহত্যায়’ ইরাকে সাধারণ মানুষ বিপর্যস্ত

জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরাকে হত্যা, অপহরণ এবং নির্যাতনের ঘটনা ব্যাপক হারে ঘটছে এবং এসব চালানো হচ্ছে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে। শুধুমাত্র গত বছর মে থেকে অক্টোবর – এই ৬ মাসে অন্তত চার হাজার বেসামরিক লোককে হত্যা করা হয়েছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে এই সংখ্যা আরও অনেক বেশি। এসব হত্যা ও নির্যাতনের জন্যে দায়ী করা হচ্ছে তথাকথিত ইসলামিক স্টেটকে। ডাক্তার থেকে শুরু করে আইনজীবী, সাংবাদিক থেকে ধর্মীয় নেতা – যাদেরকেই বিরোধী বলে মনে করছে তাদেরকেই টার্গেট করছে আই এস। তাদেরকে হত্যা করছে অত্যন্ত নিষ্ঠুর উপায়ে- গলা কেটে, উঁচু ভবন থেকে ছুড়ে ফেলে, এমনকি আগুন দিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে। জাতিসংঘ বলছে, এধরনের হত্যাকাণ্ড ও নির্যাতন যুদ্ধাপরাধের সমান হতে পারে। বিশেষ করে যেখানে একটি জাতিগোষ্ঠীকে হামলার লক্ষ্য করা হয়েছে। কোথাও কোথাও গণহত্যাও চালানো হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, শুধু মাত্র মসুল শহর থেকেই আই এস ৯০০ শিশুকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে ধর্মীয় শিক্ষা ও সামরিক প্রশিক্ষণের জন্যে। জাতিসংঘ এও বলছে, যেসব এলাকায় আই এসকে হটিয়ে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে, সেখানেও এধরনের হত্যা ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। যারাই আই এসের সমর্থক বলে সন্দেহ করা হয়, তাদেরকে অপহরণ করে হত্যা করা হচ্ছে। হত্যা ও নির্যাতন চালাচ্ছে মিলিশিয়া এবং কুর্দি পেশমার্গারাও। জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনার জায়েদ রাদ আল হুসাইন বলছেন, এই রিপোর্ট থেকে এটা স্পষ্ট যে ইরাকি শরণার্থীরা কি ধরনের ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে পালিয়ে ইউরোপে আসার চেষ্টা করছেন।বিবিসি