ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৫২ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আইএসের ৮০ যোদ্ধা নিহত
ফাইল ফটো

অল্প সময়ের স্ত্রী হতে অস্বীকারে ২৫০ নারীকে হত্যা করে আইএস

অল্প সময়ের স্ত্রী/যৌনদাসী হতে না চাওয়ায় ইরাকের মসুলে ২৫০ জন নারীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে জঙ্গিগোষ্ঠি ইসলামিক স্টেট- আইএস।  খবর ডেইলি মেইল’র।

ওই নারীরা আইএস সদস্যদের অল্প সময়ের স্ত্রী হতে অস্বীকার করেন। এরপর তাদের হত্যার করা হয়। অনেক সময় তাদের পরিবারের সদস্যদেরও হত্যা করা হয়।

সিরিয়া ও ইরাকের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের দখল নিয়ে জঙ্গিগোষ্ঠি আইএস খেলাফত গঠনের ঘোষণা দিয়েছে। মসুল ইরাকের উত্তরাঞ্চলের শহর। ২০১৪ সালের পর থেকেই এটি তাদের দখলে।
 
কুর্দিশ ডেমোক্রেটিক পার্টির মুখপাত্র মামুজিনি বলেন, ‘আইএস মসুল দখলের পর থেকে সেখানকার নারীদের বাছাই শুরু করে এবং তাদের সন্ত্রাসীদের সঙ্গে বিয়ে করতে বলপ্রয়োগ করে। যারা বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান, তাদের হত্যা করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘এরই ধারাবাহিকতায় যৌন জিহাদের রীতি মেনে না নেয়ায় অন্তত ২৫০ নারীকে হত্যা করেছে আইএস এবং কখনও কখনও তাদের পরিবারের সদস্যদেরও হত্যা করা হয়েছে।’

এ ছাড়া প্যাট্রিওটিক ইউনিয়ন কুর্দিস্তানের (পিইউকে) কর্মকর্তা ঘায়াস সুর্চি বলেন, আইএস যেখানে দখলদারিত্ব চালিয়েছে, সেখানেই মানবাধিকার লংঘন করেছে।

তিনি বলেন, মসুলে কোনো নারী একা বাইরে যেতে পারতেন না এবং কেউ স্বামী বেছে নিতে পারতেন না।

এর আগে ২০১৪ সালের আগস্টে ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের ৫ শতাধিক নারীকে অপহরণ ও তাদের ওপর যৌন হয়রানি চালায় আইএসের জঙ্গিরা।

এ বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেস্ট বারাক ওবামা সোমবার বলেছেন, যত দ্রুত সম্ভব জঙ্গিদের হাত থেকে মসুলকে পুনরুদ্ধার করা হবে।

তিনি সম্ভাব্য সময়ের আভাস দিয়ে বলেন, ‘আমার মনে হয়, এই বছরের শেষ নাগাদ মসুলে আইএসের পতন হবে। এরপর সেখানকার পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে।’