শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৪১ ঢাকা, শনিবার  ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

অরিত্রি অধিকারী
অরিত্রি অধিকারীর পুরাতন সংগৃহীত ফটো

অরিত্রীর আত্মহত্যা: এক শিক্ষিকা গ্রেপ্তার

অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় বরখাস্ত হওয়া নবম শ্রেণির শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে রাজধানীর উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (পূর্ব) একটি টিম তাকে বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গ্রেপ্তার করে।

ডিবি (পূর্ব) বলছে, পল্টন থানায় ভিকারুননিসা নূন স্কুলের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীর বাবার দায়ের করা আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলার তিন নম্বর আসামি হাসনা হেনা। তাকে রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে ‘আত্মহত্যা প্ররোচনা’র বিষয়টি তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় প্রিন্সিপাল (ভারপ্রাপ্ত) নাজনীন ফেরদাউসসহ তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নির্দেশে বরখাস্ত করা হয় প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদাউস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার এবং শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনা।

প্রসঙ্গত, নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রির বিরুদ্ধে স্কুল কর্তৃপক্ষ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরীক্ষায় নকল করার অভিযোগ এনেছিল। এ জন্য অরিত্রির মা-বাবাকে ডেকে নেন ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ।

তাদের ডেকে মেয়ের সামনেই অপমান করে বলেন, সিদ্ধান্ত হয়েছে অরিত্রিকে নকলের অভিযোগে প্রতিষ্ঠান থেকে বের করে দেয়া হবে। এ অপমান সইতে না পেরে বাসায় এসে অরিত্রি আত্মহত্যা করে।

পুলিশ ও পরিবারের তথ্যানুযায়ী, সোমবার বেলা সাড়ে ১২টায় রাজধানীর শান্তিনগরে সাততলা ভবনের সপ্তম তলায় নিজ ফ্ল্যাটে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় অরিত্রিকে পাওয়া যায়।

এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসকরা অরিত্রিকে মৃত ঘোষণা করেন।