Press "Enter" to skip to content

অভিনেতা নুরকেও ভারত ছাড়ার নির্দেশ

অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদের পর আরেক বাংলাদেশি অভিনেতা গাজি আবদুন নূরকেও ভারত ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ জনপ্রিয় এই অভিনেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায় দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মদন মিত্রের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়ায় তাকে বাংলাদেশে ফেরার যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ‘ব্যবসায়িক ভিসায় ভারতে এসে রাজনৈতিক প্রচার চালিয়েছেন নুর। তার ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও কলকাতায় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন তিনি। ভিসা আইন লঙ্ঘনের দায়ে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছে মন্ত্রণালয়’।

এর আগে রোববার রায়গঞ্জে তৃণমূল প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের হয়ে প্রচার অংশ নিয়ে শোরগোল ফেলে দেন বাংলাদেশি নায়ক ফেরদৌস। পরে মঙ্গলবার ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) পশ্চিমবঙ্গ শাখা ফেরদৌস আহমেদকে ভিসা বিধি লঙ্ঘনের দায়ে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে দেশটির নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করে।

ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফেরদৌসকে ভারতীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভিসা বাতিল করে দেশে ফেরত যাওয়ার নির্দেশ দেওয়ার পরই প্রকাশ্যে আসে, একই ভাবে তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে প্রচার করেছেন অভিনেতা গাজি আব্দুন নুর। রাজ্যের মানুষের কাছে গাজি নুর কয়েকটি জনপ্রিয় বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করার সূত্রে খুবই পরিচিত মুখ। ভারতের জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘করুণাময়ী রানি রাসমণি’ ধারাবাহিকে রাজা রাজ চন্দ্রের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন গাজি আবদুন নূর। জি বাংলার জনপ্রিয় এই সিরিয়ালের অন্যতম চরিত্র ‘রাজা রাজচন্দ্র’। চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের বাগেরহাটের বাসিন্দা গাজি আবদুন নূর।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, ‘ভারতে কাজের অনুমোদনপত্র ছিল এ দুই বাংলাদেশি অভিনেতার। সেই হিসেবে ভিসা পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করে রাজনৈতিক প্রচারে সামিল হন তারা। গাজি নুরের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করে বিজেপি’।

শেয়ার অপশন: