ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:২১ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা

সরকার পদত্যাগ না করা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। মঙ্গলবার সকালে এক বিবৃতিতে দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ ঘোষণা দিয়ে বলেছেন, ভয়ংকর দুঃশাসনের কবল থেকে গণতন্ত্র ফিরিয়ে দেয়াই আমাদের চলমান আন্দোলনের উদ্দেশ্য। আমরা স্পষ্টভাষায় বলতে চাই, বর্তমান অবৈধ সরকার অপসারণ করে জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার গঠন না হওয়া পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলবে।
এর আগে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজউদ্দিন আহমেদের কথায় ঢাকায় বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দিলে কর্মসূচি প্রত্যাহারের ইঙ্গিত মেলে।
সোমবার রাতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে বেরোনোর পর অবরোধ প্রত্যাহার হবে কিনা হাজিফকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।
জবাবে তিনি বলেন, এটি ২০ দলীয় জোটের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। তবে আমাদের পক্ষ থেকে নিশ্চয়ই ইতিবাচক পদক্ষেপ দেখতে পাবেন।
এমন পরিস্থিতিতে রুহুল কবির রিজভী দলের বর্তমান অবস্থান জানিয়ে সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত ‘শান্তিপূর্ণভাবে’ অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার জন্য বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
গত ৬ জানুয়ারি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে সাংবাদিকদের কাছে দলীয় অবস্থান জানিয়ে বক্তব্য-বিবৃতি পাঠাচ্ছেন রুহুল কবির রিজভী।
অবরোধ সমর্থকরা ‘ন্যায় ও সত্যের পক্ষে’ মন্তব্য করে বিবৃতিতে তিনি বলেন, তারা জুলুমবাজ রাষ্ট্রশক্তির অত্যাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। উদ্দেশ্য একটাই- দেশে জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা।
সোমবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভায় সরকারের মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতারা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে ‘কুৎসিত ও অশ্রাব্য’ ভাষায় বক্তব্য দিয়েছেন অভিযোগ করে তার নিন্দা জানান রিজভী।
তিনি বলেন, তাদের ওই সব নোংরা বক্তব্যের জবাব একদিন এদেশের জনগণ দেবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।
রিজভী অভিযোগ করেন, চলমান অবরোধ কর্মসূচিতে সরকারের এজেন্টরা নাশকতা করে ২০ দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হচ্ছে।
তিনি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও মামলার নিন্দা জানিয়ে তাদের মুক্তি দাবি করেন।