ব্রেকিং নিউজ

রাত ১০:৪৮ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

অবরোধ কর্মসূচিতে জনগণ সাড়া দেয়নি

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী কমরেড রাশেদ খান মেনন বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অবরোধ কর্মসূচিতে জনগণ সাড়া দেয়নি।
তিনি বলেন, বিএনপি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ কর্মসূচী পালনের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টির পায়তারা করছিলো। কিন্তু এই কর্মসূচীতে জনগণ সাড়া দেয়নি।
মেনন আজ মঙ্গলবার তোপখানা রোডস্থ শহীদ আসাদ মিলনায়তনে জাতীয় গার্হস্থ্য নারী শ্রমিক ইউনিয়নের সভায় এ কথা বলেন।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুর্শিদা আক্তার নাহারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা আবুল হোসাইন, বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সভাপতি মোস্তফা আলমগীর রতন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বাহ আলী খান কলিন্স, ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায়, গার্হস্থ্য নারী নেত্রী আমেনা বেগম প্রমুখ।
রাশেদ খান মেনন বলেন, বিএনপির নেতা কর্মীরা পূর্বের ন্যায় আন্দোলনের হুমকি-ধামকি দিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে। অন্যদিকে তার রাজনৈতিক মিত্র জামায়াত-শিবির চোরা গুপ্তা সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মানুষ হত্যা করেছে।
তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারী নির্বাচন ছিল মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও গণঅধিকার রক্ষা এবং সংবিধান ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখার নির্বাচন। গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে তখনকার বিরোধী দলের প্রতি নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য বারংবার আহ্বান জানানো হয়। কিন্তু বিএনপি ও তার রাজনৈতিক মিত্র জামায়াত ঐ নির্বাচন বর্জন ও বানচাল করতে অপচেষ্টা চালায়। সারাদেশে সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়ে জনগণকে ভয় দেখিয়ে ভোট প্রদানে বাধা দেয়। কিন্তু তাদের সেই চক্রান্ত জনগণ সফল হতে দেয়নি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার জন্য অনেক তাৎপর্যপূর্ণ।
রাশেদ খান মেনন বলেন, সেদিন বেগম খালেদা জিয়া ও তার মিত্র জামায়াত নির্বাচন বর্জনের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে হত্যা করে অসাংবিধানিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র করেছিলো। তারা আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়েছিল।
বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে তারেক রহমানের বক্তব্য চরম বেয়াদপীপূর্ণ আখ্যায়িত করে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি বলেন, এই অর্বাচীন ছাত্র জীবনে কোন সংগঠনে যুক্ত ছিল না, যার রাজনৈতিক উত্থান আকস্মিক, ইতিহাস সম্পর্কে সে অজ্ঞ মূর্খ্য, সে বেয়াদবই নয় বিশ্ববেয়াদব। তার পক্ষেই মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত ও তার স্থপতি সম্পর্কে এ ধরনের ধৃষ্ঠতাপূর্ণ বক্তব্য রাখা সম্ভব।